মঙ্গলবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
মঙ্গলবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং, ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
মঙ্গলবার, ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ ইং

তৃতীয় ঢেউয়ে যুক্তরাষ্ট্রে করোনা রোগী ১ কোটি ১৩ লাখ ছাড়াল

তৃতীয় ঢেউয়ে যুক্তরাষ্ট্রে করোনা রোগী ১ কোটি ১৩ লাখ ছাড়াল

যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে কোভিড-১৯ সংক্রমণের তৃতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক কোটি ১৩ লাখ ৬৭ হাজার ছাড়িয়ে গেছে।

প্রথম দুই ঢেউয়ের চেয়ে তৃতীয় ঢেউয়ে যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে মহামারী আরও দ্রুতগতিতে ছড়িয়ে পড়ছে। ৮ নভেম্বর শনাক্ত রোগীর সংখ্যা এক কোটি পার হয়েছিল। এর পর মাত্র আট দিনে রোগী বেড়েছে আরও সাড়ে ১৩ লাখ। খবর রয়টার্সের।

মহামারী শুরু হওয়ার পর এ পর্যায়েই দেশটিতে সবচেয়ে কম সময়ের মধ্যে এত বেশি পরিমাণ রোগী শনাক্ত হলো। এর আগে শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৯০ লাখ থেকে এক কোটিতে পৌঁছতে ১০ দিন সময় লেগেছিল; আর তারও আগে ৮০ লাখ থেকে ৯০ লাখে পৌঁছতে লেগেছিল ১৬ দিন।

বিশ্বে করোনাভাইরাস আক্রান্তের সংখ্যায় শীর্ষে থাকা যুক্তরাষ্ট্রে টানা ১১ দিন ধরে দৈনিক লাখের ওপরে রোগী শনাক্ত হচ্ছে।

সর্বশেষ সাত দিনের গড় থেকে দেখা যাচ্ছে, এ সময় দেশটিতে প্রতিদিন এক লাখ ৪৪ হাজারেরও বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে, আর মৃত্যু হয়েছে এক হাজার ১২০ জনের; বিশ্বের যে কোনো দেশের চেয়ে এ সংখ্যা অনেক বেশি।

যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে জনবহুল দুই রাজ্য, ক্যালিফোর্নিয়া ও টেক্সাসেই সবচেয়ে বেশি রোগী শনাক্ত হয়েছে।

তবে জনসংখ্যার তুলনায় সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত পাওয়া গেছে নর্থ ডেকোটা, সাউথ ডেকোটা, উইসকনসিন, আইওয়া ও নেব্রাস্কায়। যুক্তরাষ্ট্রের রাজ্যগুলোর মধ্যে এই পাঁচটি রাজ্যের মহামারী পরিস্থিতিই সবচেয়ে নাজুক হয়ে দাঁড়িয়েছে।

পরিস্থিতি মোকাবেলায় দেশটির অনেক রাজ্য মাস্ক পরা, বাড়িতে অবস্থান করাসহ বেশ কিছু বিধিনিষেধ জারি করেছে।

দেশটিতে কোভিড-১৯ জনিত সমস্যা নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া রোগী সংখ্যা ক্রমেই বৃদ্ধি পাচ্ছে। স্থানীয় স্বাস্থ্যসেবা ব্যবস্থাগুলো সক্ষমতার শেষ পর্যায়ে পৌঁছে গেছে বলে সতর্ক করে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের শীর্ষ উপদেষ্টা মহামারী নিয়ন্ত্রণ করার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন।

ওয়ার্ল্ডোমিটারসের তথ্যানুযায়ী যুক্তরাষ্ট্রে এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন ২ লাখ ৫১ হাজার ৯০১ জন, এর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৬৪৮ জনের।

শেয়ার করুন:Share on Facebook
Facebook
Tweet about this on Twitter
Twitter
Share on LinkedIn
Linkedin
Email this to someone
email

মন্তব্য করুন

মন্তব্য